চাঁদাবাজি করতে গিয়ে র‌্যাবের হাতে ৫ চাঁদাবাজ গ্রেপ্তার

আশিকুর রহমান, নরসিংদী জেলা প্রতিনিধি: নরসিংদীর মাধবদীর সড়কে অবৈধভাবে বলসৃষ্টি করে ভয়ভীতির মাধ্যমে চাঁদা উঠানোর সময় চাঁদার টাকাসহ পাঁচ চাঁদাবাজকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করেছেন র‌্যাব-১১ সিপিএসসি নরসিংদীর আভিযানিক একটি চৌকস দল।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) নরসিংদীস্হ র‌্যাব-১১ এর অস্থায়ী কার্যালয়ে ক্যাম্প কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার মোঃ শামীম হোসেন এর স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান যে :- র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধের উৎস উদঘাটন, অপরাধীদের গ্রেপ্তার,

আইনশৃঙ্খলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিভিন্ন সময়ে অপরাধীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার জন্য র‌্যাব ফোর্সেস নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব এর নিজস্ব গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১ নরসিংদীর একটি চৌকস দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার (২৭

জুলাই) নরসিংদী সদর উপজেলার মাধবদী পৌর এলাকার আনন্দী ও খেজুর তলা গালর্স স্কুল সড়কে চলাচলকারী যানবাহনের চালকদের কাছ থেকে বলপূর্বক ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরকরে অবৈধভাবে চাঁদাবাজি করছিল। এসময় র‌্যাব তাদেরকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করেন। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, নরসিংদী সদর থানাধীন নগর বানিয়াদি গ্রামের

রাজিম মিয়ার ছেলে মোঃ রহমতুল্লাহ, মাধবদী থানাধীন ছোট মাধবদী গ্রামের নুরু মিয়ার ছেলে শাহাজাহান মিয়া (২১), একই গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে হৃদয় মিয়া (১৯), কুমিল্লা জেলার দেবিদ্ধার থানাধীন বাতসা গ্রামের মৃত কাজী ফজলু হকের ছেলে কাজী মিজানুর রহমান ও

কিশোরগঞ্জ জেলার সদর থানাধীন পাইকান্দি গ্রামের কাজিম উদ্দিনের ছেলে মাহফুজ (৩৩)। এসময় তাদের কাছ থেকে চাঁদা আদায়ের ৮,৫০০/= ( আট হাজার পাঁচশত) টাকা ও ৪টি মুঠোফোন উদ্ধার করা হয়। তিনি আরও জানান গ্রেপ্তারকৃত আসামীদেরকে মাধবদী থানায় সোপর্দ করা হয় এবং নিয়মিত চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করা হয়েছে।